Categories
রাজনীতি

বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় সাহারা খাতুন

নিউজ ডেস্ক:
মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। শনিবার (১১ জুলাই) বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে মায়ের কবরে তাকে দাফন করা হয়।

এরআগে সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বাইতুশ শরফ জামে মসজিদে প্রথম জানাজা ও সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর বনানী মসজিদ প্রাঙ্গণে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানান তার সামরিক সচিব। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

পরে শ্রদ্ধা জানানো হয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে। এছাড়া আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম তার মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

গতকাল শুক্রবার (১০ জুলাই) দিবাগত রাতে ইউএস-বাংলার বিশেষ ফ্লাইট বিএস২১৪-এ তার ঢাকায় পৌছায় সাহারা খাতুনের মরদেহ।

তৃণমূল থেকে লড়াই করে রাজনীতির শীর্ষ পর্যায়ে উঠে আসা সাহারা খাতুন থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে মারা যান। চিরকুমারী সাহারা খাতুন দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী সাহারা খাতুনের বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে বাংলাদেশের জাতীয় রাজনীতির অপূরণীয় ক্ষতি হলো। তিনি আওয়ামী লীগের কঠিন সময়ে দলের পরীক্ষিত একজন নেতা ছিলেন।

এছাড়া শোক জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস প্রমুখ।

বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, সাহারা খাতুন ছিলেন সত্ ও নিবেদিতপ্রাণ রাজনীতিবিদ। শোক প্রকাশ করে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, দল ও দেশের জন্য নিজেকে ‘শতভাগ উত্সর্গ’ করেছিলেন বলেই তিনি এক জন ‘আদর্শবান রাজনীতিবিদ’ এবং ‘জনগণের নেত্রী’ হয়ে উঠতে পেরেছিলেন।

Source : বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় সাহারা খাতুন

Categories
রাজনীতি

অনাহারে প্রতিদিন ১২ হাজার মানুষ মারা যেতে পারে : অক্সফাম

বিশ্ব এক ভয়াবহ পরিস্থিতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। মানুষ অতিদরিদ্র হয়ে গভীর সঙ্কটের মুখে পড়বে। ফলে তীব্র ক্ষুধা ও গভীর দরিদ্রতা তাদের মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিবে।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন আভাস দিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম। প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছরের শেষ নাগাদ করোনা ভাইরাসের চেয়ে বেশি মানুষ মারা যেতে পারে ক্ষুধার কারণে।

প্রতিবেদন অনুসারে, এই মহামারির কারণে বিশ্বের আনুমানিক ১২ কোটি ২০ লাখ মানুষ অতিদরিদ্র হয়ে পড়বে। ফলে ক্ষুধায় প্রতিদিন অন্তত ১২ হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে।

‘দ্য হাঙ্গার ভাইরাস’ শীর্ষক এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা মহামারির কারণে সাহায্য-সহায়তা কমে যাওয়া, ব্যাপক বেকারত্ব, খাদ্য উৎপাদনে ব্যাহত হওয়া, খাদ্য সরবরাহে বিঘ্ন ঘটা- এসব কারণে এ বছর প্রায় ১২ কোটি ২০ লাখ মানুষ অনাহারে পড়তে পারে।

বেশি খাদ্য সঙ্কট দেখা দিতে পারে এমন ১০টি দেশকে চিহ্নিত করেছে দাতব্য সংস্থা অক্সফাম। এর মধ্যে রয়েছে ইয়েমেন, আফগানিস্তান এবং ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো।

এছাড়া ভেনিজুয়েলা এবং দক্ষিণ সুদানের মতো দেশগুলোতে খাদ্য সংকট চরমে রয়েছে। এ সংকট আরো ভয়াবহ পর্যায়ে চলে যাচ্ছে।

২০১৯ সালে আফগানিস্তানে যত মানুষ খাদ্য সংকটে ছিল তার চেয়েও এ বছর আরো বেশি মানুষ খাদ্য সংকটে পড়েছে। বর্তমানে ৩৫ লাখ মানুষ দেশটিতে দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মহামারির কারণে মধ্যম আয়ের দেশ যেমন ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ব্রাজিলেও মানুষ না খেয়ে থাকার মত পরিস্থিতিতে চলে যাচ্ছে।

অপরদিকে করোনা ভাইরাসের কারণে বহু মানুষ চাকরি হারানোয় চলতি বছরের প্রথম চার মাসে ইয়েমেনসহ মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে রেমিটেন্স ৮০ শতাংশ কমে গেছে। বেড়ে গেছে খাবারের দাম। সীমান্ত এবং পণ্য সরবরাহ রুট বন্ধ হওয়ায় খাদ্য ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

অক্সফামের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, ২০০৮ সালের বিশ্বমন্দার চেয়ে এখন অনেক দ্রুত অর্থনৈতিক সংকট বেশি ঘনীভূত হচ্ছে। এ সংকটে ৫০ কোটি মানুষ দারিদ্র্যের মুখে পড়তে পারে। ১৯৯০ সালের পর বিশ্বে প্রথম বেড়ে যেতে পারে দারিদ্র্য।

গত সপ্তাহে বিশ্বব্যাংক বলেছিল, অবস্থার অবনতি ঘটলে পূর্ব এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ১১ মিলিয়ন মানুষ দরিদ্র হয়ে যেতে পারে। খবর: রয়টার্স, বিবিসি, দ্য টেলিগ্রাফ।

Source : অনাহারে প্রতিদিন ১২ হাজার মানুষ মারা যেতে পারে : অক্সফাম

Categories
রাজনীতি

সিনেমায় যে মানুষ নিজের হাজতে বন্দী

অপরাধবোধের গল্পে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্র ‘হাজত’। এই সিনেমার প্রধান চরিত্র সাদেক। সে একটি ভয়ংকর অপরাধ করে ফেলে। সেই অপরাধ সম্পর্কে আশপাশের কেউ কখনো জানতে পারে না। সেই সুবাধে তার স্বাভাবিক জীবন স্বাভাবিকভাবেই পার হবার কথা। কিন্তু সাদেকের ভেতরের অপরাধবোধ নতুন এক যন্ত্রণার জন্ম দেয়। যা থেকে মুক্তির নানা উপায় খুঁজতে থাকে সাদেক।

যুবরাজ শামীম নির্মিত এই ছবির গল্প ও চিত্রনাট্যও করেছেন তিনি নিজে। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদেক, বাদশা, দুলাল, সোহাগী, স্বপন।

এটা মূলত মানুষের মানসিক সৌন্দর্যের দিকটি তুলে ধরবে। যেখানে একজন অপরাধ করেও অনুতপ্ত হয়। নিজের কাছে, জীবনের কাছে সে আরেকটি সুযোগ খুঁজে বেড়ায় এই অপরাধ মুছে ফেলার জন্য। কারণ সাদেক বুঝতে পারে অপরাধ করে দুনিয়ার হাজত থেকে পার পেলেও নিজের ভেতরে যে হাজত সেখান থেকে মুক্ত হওয়া যায় না। এই ভাবনাতেই সিনেমার নাম ‘হাজত’ রাখা হয়েছে বলে দাবি করেন নির্মাতা যুবরাজ শামীম।

পরিচালক বলেন, ‘এর আগে প্রতি শেয়ার ৫০০০ টাকা করে মোট ১২০টি শেয়ার বিক্রির অর্থ দিয়ে ‘আদিম’ নামে একটি সিনেমার কাজ শেষ করেছি। যেখানে বস্তির কিছু অপেশাদার অভিনেতা-অভিনেত্রী যে যার নিজের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। সে সিনেমার কাজ শেষ ধাপে রয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এটি মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা করেছি। আর নতুন ভাবনায় শুরু করেছি ‘হাজত’।

এখানে ‘আদিম’-এর কথা বলছি এ কারণে যে এই আদিম’- এরই সিক্যুয়েল ‘হাজত’। ‘হাজত’ও গণ অর্থায়নের সিনেমা।’

‘এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই টানা ১৬ দিন শুটিং করেছি ‘হাজত’র। শুটিং করার ক্ষেত্রে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ছবিটির কলাকুশলী চারজনের মতো। তাই টিমটাও ছোট ছিলো। খুব বেশি কষ্ট করতে হয়নি আমাদের’- যোগ করেন যুবরাজ।

তিনি জানান, বর্তমানে সম্পাদনার টেবিলে রয়েছে ‘হাজত’। পরিস্থিতি ঠিক হলে ‘আদিম’ মুক্তি পাবে। এরপরই ‘হাজত’-কেও মুক্তি দেয়া হবে।

Source : সিনেমায় যে মানুষ নিজের হাজতে বন্দী

Categories
রাজনীতি

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে দাঁড়াতেই পারলো না ইংল্যান্ড

করোনা সঙ্কট কাটিয়ে ইংল্যান্ডের মাঠে ফিরেছে ক্রিকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বৃষ্টির বাধায় প্রথম দিনটি ভালো হয়নি। তবে দ্বিতীয় দিনটা পুরোপুরি নিজেদের করে নিলো সফরকারিরা। মাত্র ২০৪ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস।

সাউদম্পটন টেস্টের দ্বিতীয় দিনে হোল্ডার দেখালেন, তিনি নিজের দিনে কি করতে পারেন। আগুনে বোলিংয়ে ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের কাঁদিয়ে ছাড়লেন। করলেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। সঙ্গে শেনন গ্যাব্রিয়েলও কম গেলেন না। দুই পেসারের বিধ্বংসী বোলিংয়েই শেষ হয়ে গেছে ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস।

কয়েকদিন আগেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডার আক্ষেপ করে বলেছিলেন, তিনি টেস্টে র‌্যাংকিংয়ের এক নম্বর অলরাউন্ডার হলেও প্রাপ্য সম্মানটা পান না তিনি। এই মতের সাথে একমত পোষণ করেছিলেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারও। ব্রায়ান লারার সঙ্গে কথোপকথনের এক পর্যায়ে তিনি বলেছিলেন,.বিশ্বের সবচেয়ে আন্ডাররেটেড অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডার। ব্যাটে-বলে নীরবে তিনি পারফর্ম করে যান, কিন্তু প্রচারের আলোয় আসেন কম।

করোনা পরবর্তী সময়ে ঘরের মাঠে টেস্টে ফিরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের সামনে রীতিমত ধুঁকেছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। কেউ হাফসেঞ্চুরিও করতে পারেননি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন অধিনায়ক বেন স্টোকস। তার উইকেটটিও নিয়েছেন প্রতিপক্ষ অধিনায়ক হোল্ডার।

শেনন গ্যাব্রিয়েলের বলে বোল্ড হয়ে আগের দিনই ফিরেছিলেন ডম সিবলি (০)। ১ উইকেটে ৩৫ রান নিয়ে খেলা শুরু করে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে জো ডেনলিকেও (১৮) বোল্ড করেন সেই গ্যাব্রিয়েল। এক ওভার বিরতি দিয়ে ডানহাতি এই পেসার এলবিডব্লিউ করেন মোটামুটি আস্থার সঙ্গে খেলতে থাকা ররি বার্নসকেও (৩০)।

এরপর দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। জ্যাক ক্রলি আর অলি পোপকে অল্প রানেই সাজঘরে ফেরান তিনি। ক্রলি এলবিডব্লিউ হন ১০ রানে, পোপকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন ১২-তে। ৮৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে ইংল্যান্ড।

সেখান থেকে ষষ্ঠ উইকেটে প্রতিরোধের চেষ্টা স্টোকস আর জস বাটলারের। দায়িত্ব নিয়েই খেলছিলেন স্টোকস, দলও ঘুরে দাঁড়াচ্ছিল। এ সময় ফের বাধা হয়ে দাঁড়ান হোল্ডার। তার ফুলার ডেলিভারিটা পুশ করতে গিয়ে এজ হয়ে উইকেটরক্ষকের ক্যাচ হন ৪৩ রানে থাকা স্টোকস।

এক ওভার বিরতি দিয়ে এসে স্টোকসের জুটির আরেক সঙ্গী বাটলারকেও (৩৫) উইকেটরক্ষকের ক্যাচ বানান হোল্ডার। তার পরের ওভারে আরও এক উইকেট। জোফরা আর্চারের (০) পায়ে বল লাগলে আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটলবোরো অবশ্য আঙুল তুলেননি। রিভিউ নিয়ে জিতে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

পাঁচ উইকেটের কোটা পূরণ করেও হোল্ডার থামেননি। মার্ক উডকে আউট করেন ৫ রানে। দশম উইকেটে আরও একবার প্রতিরোধের মুখে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জেমস অ্যান্ডারসনকে নিয়েই এগিয়ে যেতে থাকেন ডম বেস। শেষতক তাদের ৩০ রানের জুটিটি ভাঙেন গ্যাব্রিয়েল, জেমস অ্যান্ডারসনকে (১০) বোল্ড করে। ডম বেস ৩১ রানে অপরাজিতই থেকে যান।

গ্যাব্রিয়েল পান ৬২ রানে ৪ উইকেট। তাতে ক্যারিয়ারসেরা বোলিং নিশ্চিত হয়ে যায় হোল্ডারের। ক্যারিবীয় দলপতির এর আগে সেরা ছিল বাংলাদেশের বিপক্ষে। ২০১৮ সালে কিংস্টোনে ৫৯ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। এবার ৪২ রানে নিলেন ৬ উইকেট। ক্যারিয়ারে তার ৬ উইকেট শিকার এই দুইবারই।

Source : ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে দাঁড়াতেই পারলো না ইংল্যান্ড

Categories
রাজনীতি

আটক এমপি পাপুল কুয়েতের নাগরিক নন : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

নিউজ ডেস্ক:
মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতের কারাগারে আটক বাংলাদেশি এমপি মোহাম্মদ শহিদ ইসলাম কুয়েতের নাগরিক নন বলে জানিয়েছে কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

উপসাগরীয় এই দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে আজ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ওই বাংলাদেশি কুয়েতের নাগরিকত্ব পেয়েছেন বলে সোশাল মিডিয়াতে যেসব কথা বলা হচ্ছে তা সঠিক নয়।

লক্ষীপুরের একটি আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য শহিদ ইসলাম পাপুল নামেই বেশি পরিচিত।

শহিদ ইসলামের নাগরিকত্ব নিয়ে বাংলাদেশের সংসদে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের একদিন পরেই কুয়েত সরকারের পক্ষ থেকে একথা জানানো হলো।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কুয়েতের একটি আইনে তিনি সেখানে বসবাস করছেন এবং একাধিক মামলায় গ্রেফতার হয়ে পাবলিক প্রসিকিউশনের হেফাজতে রয়েছেন।

দুর্নীতির অভিযোগে বাংলাদেশি এই এমপির গ্রেফতারের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের তীব্র সমালোচনা হচ্ছে।

এই প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার সংসদে বলেছেন, মি. ইসলাম কুয়েতের নাগরিকত্ব নিয়ে থাকলে তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হয়ে যাবে। এবিষয়ে বাংলাদেশ সরকার খোঁজ খবর নিচ্ছে।

শহিদ ইসলাম ২০১৮ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত হন। পরে তার স্ত্রীও সংরক্ষিত আসনে এমপি নির্বাচিত হন।

কুয়েতে পাচার হওয়া কয়েকজন বাংলাদেশির অভিযোগের ভিত্তিতে জুন মাসের শুরুতে মি. ইসলামকে গ্রেফতার করাহয়।

মি. ইসলামের কোম্পানির ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে কুয়েত কর্তৃপক্ষ। বাংলাদেশেও তার বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সূত্র : বিবিসি বাংলা।

Source : আটক এমপি পাপুল কুয়েতের নাগরিক নন : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

Categories
রাজনীতি

১৫ লাখ কবর খুঁড়ছে দক্ষিণ আফ্রিকা!

নিউজ ডেস্ক:
করোনায় ভয়াবহ হয়ে উঠছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় আফ্রিকা মহাদেশে শীর্ষে আছে দেশটি। পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার আশঙ্কায় আগাম কবর খুঁড়ে রেখে প্রস্তুতি নিচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দেশটির গাওতেং প্রদেশেই এসব কবর খোঁড়া হচ্ছে। দেশটিতে করোনার সবচেয়ে বড় হট স্পট এই প্রদেশ। গাওতেং কর্তৃপক্ষ নিজ দায়িত্বে এসব কবর খুঁড়ছে। অন্তত ১৫ লাখ কবর খোঁড়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

প্রাদেশিক কাউন্সিলের সদস্য ডা. বান্দিলে মাসুকু জানান, এটি অস্বস্তিকর একটি সিদ্ধান্ত। এখন জনসাধারণের দায়িত্ব, এসব কবরের যাতে প্রয়োজন না হয়।

রাজধানী প্রেতোরিয়া এবং দেশটির সবচেয়ে বড় শহর জোহান্সবার্গ গাওতেং প্রদেশেরই অন্তর্ভুক্ত। জোহান্সবার্গ এই অঞ্চলের রাজধানী। গাওতেংয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৭১ হাজার ছাড়িয়ে গেছে, যা দেশের মোট আক্রান্তের ৩৩ শতাংশ।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস হানা দেয় দক্ষিণ আফ্রিকায়। এরইমধ্যে দুই লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৩ হাজার ৬০২ জন।

Source : ১৫ লাখ কবর খুঁড়ছে দক্ষিণ আফ্রিকা!

Categories
রাজনীতি

অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক:
থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন আর নেই।

বৃহস্পতিবার ব্যাংকক স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে মারা যান তিনি। সাহারা খাতুনের ব্যক্তিগত সহকারী মজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ব্যাংকক স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিট) বামুনগ্রাদ হাসপাতালে অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ইন্তেকাল করেন।

এর আগে গত সোমবার থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনকে।

জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন সাহারা খাতুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। এখানে তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

এরপর অবস্থার উন্নতি হলে তাকে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। পরে ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

Source : অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন আর নেই

Categories
জাতীয় নির্বাচিত

করোনা টেস্টে প্রতারণা: উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতাল সিলগালা

নিউজ ডেস্ক:
টেস্ট না করেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেয়াসহ নানা অভিযোগে সিলগালা করে দেয়া হয়েছে ঢাকার উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতাল ও রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয়। বেলা চারটার দিকে রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে র‍্যাবের টীম সেখানেও অনুমোদনহীন টেস্ট কিট ও বেশ কিছু ভূয়া রিপোর্ট পেয়েছে জানিয়েছে র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।

অভিযান শেষে সারোয়ার আলম বলেন “রিজেন্ট হাসপাতাল ও প্রধান কার্যালয় সিলগালা করে দিয়েছি। হেড অফিসে বসেই মিথ্যা রিপোর্ট তারা তৈরি করতো। হেড অফিসে ৫/৭ দিনের স্যাম্পল এক সাথে করে ফেলে দিতো। ভূয়া রিপোর্টও পেয়েছি। অনুমোদনহীন র‍্যাপিড কিট আমরা পেয়েছি”।

অভিযান শুরুর আগে সারোয়ার আলম বিবিসি বাংলাকে বলেছেন রিজেন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের কুর্মিটোলা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তিনি জানান রিজেন্ট হাসপাতাল ও গ্রুপের মালিক ও এমডি সহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হবে এবং এর মধ্যে আট জনকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে সোমবার বিকেলে রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের পর মিস্টার আলম বলেছিলেন, এসব অনিয়মের সাথে হাসপাতালটির চেয়ারম্যানই জড়িত এবং তিনি নিজেই এসব ডিল করেছেন। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা নিয়ে এটি দ্বিতীয় কোনো প্রতিষ্ঠান যার বিরুদ্ধে মামলা হলো।

এর আগে জেকেজি নামক একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ ওঠার পর আইন প্রয়োগকারী সংস্থা তার প্রমাণ পেয়ে সেটি বন্ধ করে দিয়েছিলো। আটকও করা হয়েছিলো কয়েকজনকে। তবে রিজেন্ট হাসপাতালের মালিককে আটক না করা গেলেও সোমবারই হাসপাতালটির আটজন কর্মকর্তাকে আটক করেছে র‍্যাব।

৫০ শয্যার এই হাসপাতালটিকে স্বাস্থ্য অধিদফতর অনুমোদন দিয়েছিলো ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে। পরে ২০১৭ সালে মিরপুরেও হাসপাতালটির আরেকটি শাখা খুলে তার অনুমোদন নেয়া হয়। যদিও এসব হাসপাতালের লাইসেন্সের মেয়াদ একবার উত্তীর্ণ হওয়ার পর আর নবায়ন করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

গত ৮ই মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর যখন কোনো হাসপাতাল করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে রাজী হচ্ছিলোনা তেমন প্রেক্ষিতে রিজেন্ট সহ তিনটি হাসপাতালের সাথে চুক্তি করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

চুক্তির আওতায় সরকার সেখানে ডাক্তার, নার্সসহ কিছু জনবলও নিয়োগ দেয়। হাসপাতালটির করোনা রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দেয়ার কথা ও পরে সরকার সেই টাকা পরিশোধ করার কথা ছিলো।

রিজেন্টের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

হাসপাতাল সিলগালা করে দেয়ার পর সারোয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে ৪২৬৪টি স্যাম্পল রিজেন্ট টেস্ট করেছে এবং এর বাইরে ৬ হাজারের বেশি স্যাম্পল টেস্ট না করেই তারা ভূয়া রিপোর্ট দিয়েছে।

“একই সাথে এ প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স ২০১৪ সাল থেকে নেই আর আইসিইউ যেটা আছে এটা নরমাল ওয়ার্ডও না। সেখানে পুরনো কাথা বালিশ থেকে আরম্ভ করে সব আছে। এর যে ডায়াগনসিস ল্যাব সেখানে কোনো মেশিন নেই, সেখানে কোনো টেস্ট না করেই রিপোর্ট দিয়েছে। ফ্রিজের মধ্যে এক অংশে রি এজেন্ট আর অন্য অংশে আইয়ের মাছ পাওয়া গেছে। এর যে ডিসপেনসারি সেখানে সব সার্জিক্যাল আইটেম ৫/৬ বছর আগের মেয়াদোত্তীর্ণ। এর মালিকের গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নেই”।

এর আগে প্রধান কার্যালয়ে অভিযান চালানোর সময় তিনি বেশ কিছু রিপোর্ট ও কিট সাংবাদিকদের দেখিয়ে বলেন, “দেখুন এগুলো তো হাসপাতালে থাকার কথা। অথচ এসব রিপোর্ট পড়ে আছে তাদের গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে। এসব অনিয়মের সাথে হাসপাতালটির চেয়ারম্যানই জড়িত এবং তিনি নিজেই এসব ডিল করেছেন।”

হাসপাতালটিতে আজ দুপুর নাগাদ ১৪ জন কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসাধীন ছিলো। এরআগে সোমবার বিকেলে রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের পর সারোয়ার আলম জানিয়েছিলেন যেএখন পর্যন্ত দুশোর মতো রোগীকে চিকিৎসা দিয়েছে রিজেন্ট হাসপাতাল।

ভুয়া রিপোর্ট তৈরি আর দুবার টাকা আদায়

সোমবার বিকেলে রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালানোর পর মিস্টার আলম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন যে তারা হাসপাতালটি একজন কর্মকর্তার রুমে অনেক নমুনা পড়ে থাকতে দেখেছেন যেগুলো করোনা পরীক্ষার জন্য গ্রহণ করা হয়েছিলো। তবে অভিযানের আগেই করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট তৈরির অন্তত ১৪টি প্রমাণ র‍্যাব পেয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

মিস্টার আলম জানান হাসপাতালটি নমুনা সংগ্রহ করে সেগুলোর কোনো পরীক্ষা ছাড়াই পজিটিভ বা নেগেটিভ উল্লেখ করে রিপোর্ট দিতো। “আমরা আমাদের সরকারি প্রতিষ্ঠানে ভেরিফাই করে দেখেছি যে তারা এসব রিপোর্ট ওখান থেকে নেয়নি। সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো নিশ্চিত করেছে যে এসব নমুনা তারা পরীক্ষা করেনি এবং এসব রিপোর্টও তারা দেয়নি”।

বরং এসব রিপোর্ট বিশ্বাসযোগ্য করতে সংশ্লিষ্ট সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সিল ও প্যাড নকল করে ব্যবহার করা হতো বলে বলছেন মিস্টার আলম। এ ধরণের প্রচুর ভুয়া সনদ অভিযানের সময় উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব। আবার সরকারিভাবে যে টেস্ট বিনামূল্যে করার কথা সেগুলোর জন্যও তারা টাকা আদায় করতো।

আবার রোগীর কাছ থেকে টাকা আদায় করে পরে সেটিকে বিনামূল্যে করা হয়েছে দেখিয়ে সরকারের কাছে প্রায় দেড় কোটি টাকার বিল জমা দিয়েছিলো রিজেন্ট কর্তৃপক্ষ।

এমনকি যেই চিকিৎসা বিনামূল্যে করার কথা সেটির জন্য রোগীর কাছ থেকে টাকা নিয়ে আবার সরকারের কাছ থেকেও সেই টাকা গ্রহণ করেছে হাসপাতালটি। যদিও অভিযানের আগে রিজেন্টের মালিকা মোহাম্মদ সাহেদ সাংবাদিকদের কাছে তাদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ গুলো অস্বীকার করেছেন। তবে এর পর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা।

Categories
জাতীয় নির্বাচিত

রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে র‍্যাবের হানা

নিউজ ডেস্ক:
রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলছে। রাজধানীর উত্তরায় মঙ্গলবার (৭ জুলাই) বিকেল ৩টার পরপর এ অভিযান চালায় র‍্যাব।

অভিযানের শুরুতেই রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহেদের গাড়ি জব্দ করা হয়।

এর আগে গতকাল সোমবার বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করেছিল র‍্যাব। এতে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। অভিযানে রিজেন্টের ৮ জন কর্মকর্তাকে আটক করা হয়।

এরপর হাসপাতালটির রোগী স্থানান্তরের পর রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরে রিজেন্ট হাসপাতালের দুটি শাখা সিলগালা করে দেয়া হয়। একইসঙ্গে উত্তরায় রিজেন্টের প্রধান কার্যালয়ও সিলগালা করা হয়। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

Categories
আন্তর্জাতিক নির্বাচিত প্রবাস

৭৮০০ বাংলাদেশিসহ ১১ লাখ ছাত্রকে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়ার নির্দেশ

নিউজ ডেস্ক
করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটিগুলোতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশের ৭ হাজার ৮০০ ছাত্র-ছাত্রীসহ বিশ্বের ১১ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীকে অবিলম্বে নিজ নিজ দেশে চলে যাওয়ার নির্দেশ জারি হয়েছে।

সোমবার (৬ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট (আইসিই) এ নির্দেশ জারি করেছে। আইসিই জানিয়েছে, ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট হিসেবে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরতরা এ নির্দেশ অমান্য করলে তাদের গ্রেফতারের মুখোমুখি হতে হবে। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী গ্রেফতারের পর সবাইকে নিজ নিজ দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

এতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, করোনার কারণে প্রতিটি ইউনিভার্সিটির ক্লাস অনলাইনে করা হবে। তাই সশরীরে ক্লাসে থাকার কোনই প্রয়োজন নেই। আইসিইর এ পদক্ষেপের ভিকটিম হবেন নিয়মিত ছাত্র-ছাত্রীসহ যারা স্বল্পমেয়াদি ট্রেনিং কোর্স (নন-একাডেমিক অথবা ভোকেশনাল) নিতে এসেছেন তারাও।

আসছে সেপ্টেম্বরে শুরু নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস অনলাইনে করার কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্রের সব ইউনিভার্সিটি। চলতি সপ্তাহে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা এ নিয়ে ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে মিলিত হয়েছেন। করোনার প্রকোপ অব্যাহত থাকলে ক্যাম্পাসে স্বাস্থ্যবিধির পরিপূরক হবে না বলেও মিটিংয়ে অভিমত পোষণ করেছেন অনেকে।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) নির্দেশ অনুযায়ী শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হলে প্রতিটি কক্ষে সর্বোচ্চ আটজনকে বসার ব্যবস্থা করা যাবে। অবশিষ্ট ২২ থেকে ২৩ জন কীভাবে ক্লাস করবেন-এমন প্রসঙ্গও উঠেছে ওইসব নীতি-নির্ধারকদের বৈঠকে।

গত মার্চে যুক্তরাষ্ট্রে করোনার তাণ্ডব শুরুর পর থেকেই সবকিছু লকডাউনে গেছে। জুন পর্যন্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ক্লাস নেওয়া হয় অনলাইনে। এমনকি যারা ক্যাম্পাসে অর্থাৎ ডর্মে (আবাসিক হোটেল) ছিলেন, তারাও ক্লাস করেন অনলাইনে। সেপ্টেম্বরে শুরুতে নতুন শিক্ষাবর্ষেও ক্লাসে উপস্থিত হবার মতো পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে বলে কেউই মনে করছেন না। কারণ, গত কয়েক সপ্তাহে ৫০ স্টেটের মধ্যে অন্তত: ৩৬টিতেই উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণ বেড়েছে। যেসব সিটি অথবা কাউন্টিতে লকডাউন শিথিল করা হয়েছিল, সেসবে পুনরায় সবকিছু বন্ধ করা হয়েছে। অর্থাৎ এক ধরনের অস্থিরতা পুনরায় জনজীবনকে গ্রাস করতে চলেছে।